ফরাজী আন্দোলনের লক্ষ্য, কারণ ও ফলাফল টীকা লেখো।

ফরাজী আন্দোলনের প্রবর্তক কে ছিলেন?

📝 ১৮২০ খ্রিস্টাব্দে হাজি শরিয়ৎ উল্লাহ বাংলাদেশের ফরিদপুরে ফরাজী আন্দোলনের সূচনা করেন। এই আন্দোলনের অপর আর এক নেতা হলেন দুদুমিঞা।
✏️ ফরাজী শব্দের অর্থ হল — ইসলামের নির্দেশিত বাধ্যতামূলক কর্তব্য

ফরাজী আন্দোলনের লক্ষ্য

✳️ ফরাজী আন্দোলনের লক্ষ্যগুলি হল—
  • ১। ইসলাম ধর্মের কুসংস্কারগুলি দূর করা।
  • ২। কোরান নির্দেশিত পথে সমাজ ও ধর্মকে পরিচালিত করা।
  • ৩। বাংলা থেকে কোম্পানী শাসনের উচ্ছেদ ঘটিয়ে ইসলামের শাসন প্রতিষ্ঠা করা।
  • ৪। জমিদার ও নীলকরদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে শোষিত করা। মুসলমানদের সংঘটিত করা।

কোন্ কোন্ অঞ্চলে ফরাজী আন্দোলন বিকাশলাভ করেছিল? 

✏️ মূলত বাংলাদেশের ফরিদপুরে আন্দোলন শুরু হলেও অচিরেই তা বরিশাল, ময়মনসিংহ, ঢাকা সহ সমগ্র বাংলায় বিকাশলাভ করে।

ফরাজী আন্দোলনের ব্যর্থতার কারণ

✳️ এই আন্দোলনের ব্যর্থতার কারণগুলি হল— 
  • ১। নীলকর ও জমিদারদের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি আন্দোলনকারীদের ছিল না, 
  • ২। হিন্দু সম্প্রদায় আন্দোলনে যোগ দেয়নি,
  • ৩। আন্দোলনকারীদের নির্দিষ্ট লক্ষ্য ও কর্মসূচীর অভাব ছিল,
  • ৪। দুদুমিঞার পর যোগ্য নেতার অভাব, 
  • ৫। জনসাধারণকে বলপূর্বক দলভুক্ত করা।

বাংলার ইতিহাসে ফরাজী আন্দোলনের তাৎপর্য

✳️ ফরাজী আন্দোলনের তাৎপর্যগুলি হল- 
  • ১। এই আন্দোলনে ধর্মীয় ভাবযুক্ত থাকলেও এটি ছিল মূলত বাংলার একটি কৃষক বিদ্রোহ। 
  • ২। এই আন্দোলন পরবর্তী মুসলমান আন্দোলনগুলিকে প্রভাবিত করে।
  • ৩। জমিদার ও নীলকরদের বিরুদ্ধে নিপীড়িত জনগণের জাগরণ, তাদের মধ্যে নতুন চেতনার সঞ্চার করে।
Next Post Previous Post