পোটসডাম সম্মেলন কী? এই সম্মেলনে গৃহীত সিদ্ধান্তগুলি পর্যালোচনা করো।

পোটসডাম সম্মেলন

পূর্ব ইউরোপে সোভিয়েত প্রভাব বিস্তার ঠান্ডা লড়াই রাজনীতির পূর্ববর্তী পটভূমি রচনা করেছিল। যুদ্ধকালীন তিন রাষ্ট্রপ্রধাানের (ব্রিটেন, মার্কিন ও রাশিয়া) তিনটি শীর্ষ সম্মেলন পূর্ব ইউরোপে সোভিয়েত প্রভাব বিস্তারের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করেছিল। এর মধ্যে পোটসডাম সম্মেলন উল্লেখ্য।

পোটস্ডাম সম্মেলন সিদ্ধান্তসমূহ ও প্রভাব বিশ্লেষণ

১৯৪৫ সালের জুলাই মাসে পোটসডামে মিত্রপক্ষীয় রাষ্ট্রদের শেষ যুদ্ধকালীন সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই সম্মেলনে আটলান্টিক চার্টারের রাষ্ট্র নায়কদের মধ্যে একমাত্র স্টালিনই অংশগ্রহণ করেছিলেন। কারণ, রুজভেল্ট-এর আকস্মিক মৃত্যুর ফলে উপরাষ্ট্রপতি হ্যারি ট্রুম্যান মার্কিন রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। অন্যদিকে, ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে রক্ষণশীল দলের পরাজয় হলে চার্চিল ক্ষমতাচ্যুত হন এবং তাঁর স্থলাভিষিক্ত হন শ্রমিকদের নেতা ক্লিমেন্ট এটলী। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই সময়ে তাঁর পারমাণবিক বোমার সফল পরীক্ষা করতে সক্ষম হলে সোভিয়েত সহযোগিতার প্রয়োজন হ্রাস পেতে থাকে। কিন্তু মার্কিন ও সোভিয়েত নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করতে যে পোটস্ডাম সম্মেলন আহ্বান করেছিল, তাতে কিছু সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছিল।


পোটসডাম সম্মেলনে গৃহীত সিদ্ধান্ত

ব্রিটেন, ফ্রান্স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত রাশিয়া ও চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের নিয়ে একটি কাউন্সিল গঠিত হবে। এরা জার্মানী, ইটালীসহ পরাজিত দেশগুলির সাথে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করবে।

  • (a) যুদ্ধ অপরাধীদের বিচার করতে হবে ও দন্ড দিতে হবে।
  • b) তেহরান থেকে মিত্রপক্ষ বাহিনী সরাতে হবে।
  • (c) পোল্যান্ডে নির্বাচনের মাধ্যমে জাতীয় সরকার গড়া হবে।
  • (d) অস্ট্রিয়ার থেকে ক্ষতিপূরণ চাওয়া হবে না।
  • (e) ভবিষ্যতে জার্মানী যাতে শান্তি নষ্ট না করতে পারে তার জন্য ন্যাৎসীবাদ, সমরবাদ নষ্ট করাইবে। জার্মানীর সামরিক শিক্ষাকেন্দ্র ও ন্যাৎসী প্রতিষ্ঠানগুলি বাতিল করে পুরো নিরস্ত্র করতে হবে। ন্যাৎসী কর্মচারীদের পদচ্যুত করতে হবে।
  • (f) জার্মানীর যুদ্ধাস্ত্র তৈরির কারখানাগুলি মিত্রপক্ষের অধীনে রাখতে হবে।
  • (g) জার্মানীতে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে, জার্মানীর শাসনব্যবস্থাকে বিকেন্দ্রীভূত করে স্বায়ত্তশাসন ব্যবস্থার প্রবর্তন করতে হবে।
  • (h) জার্মানীর অর্থনৈতিক ব্যবস্থাকে মিত্রপক্ষের অধীনে রেখে যুদ্ধের জন্য ক্ষতিপূরণ আদায়ের জন্য একটি কমিশন গঠিত হবে। রাশিয়া বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় প্রাপ্য ক্ষতিপূরণের অর্ধেক রাশিয়াকে দেওয়া হবে।
  • (i) জার্মানীর নৌবন্দরগুলিকে সোভিয়েত, ব্রিটেন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে এবং সাবমেরিনগুলিকে নষ্ট করা হবে।
  • (j) পূর্ব প্রাশিয়াকে দ্বিধাবিভক্ত করে সোভিয়েত রাশিয়া ও পোল্যান্ডকে দেওয়া হবে। এবং পূর্ব প্রাশিয়ার পশ্চিমাঞ্চল পোল্যান্ডকে দেওয়া হবে।


পোটসডাম সম্মেলনে স্থির হয় যে, জার্মানীকে মিত্রপক্ষীয় চারটি দেশের কর্তৃত্বাধীন চারটি পৃথক সামরিক বলয়ে বিভক্ত করা হবে। কিন্তু জার্মান সমস্যার সঠিক সমাধান সম্ভব হয়নি। ফলে জার্মানীর ভবিষ্যৎ নিয়েই সোভিয়েত মার্কিন যুদ্ধ প্রকট হয়ে ওঠে। যুদ্ধকালীন মহাজোট নষ্ট হয়ে যায়। তাই বলা যায়, পোটস্লাম সম্মেলন ঠান্ডা লড়াই-এ ইন্ধন দেওয়ার ক্ষেত্রে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ছিল।


Short Questions

প্রশ্ন ১: পোটস্ডাম সম্মেলন কী?

উত্তর: পোটস্ডাম সম্মেলন হলো ১৯৪৫ সালের জুলাই মাসে জার্মানির পোটস্ডাম শহরে অনুষ্ঠিত মিত্রপক্ষীয় রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে অনুষ্ঠিত শেষ যুদ্ধকালীন সম্মেলন। এই সম্মেলনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত রাশিয়া, এবং যুক্তরাজ্যের নেতারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী ইউরোপের ভাগ্য নির্ধারণে আলোচনা করেন।


প্রশ্ন ২: পোটসডাম সম্মেলনে কোন নেতারা অংশগ্রহণ করেছিলেন?

উত্তর: পোটসডাম সম্মেলনে সোভিয়েত রাশিয়ার স্টালিন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হ্যারি ট্রুম্যান এবং যুক্তরাজ্যের ক্লিমেন্ট এটলি অংশগ্রহণ করেছিলেন। প্রাথমিকভাবে যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন উইনস্টন চার্চিল, কিন্তু নির্বাচনে পরাজয়ের পর ক্লিমেন্ট এটলি তার স্থলাভিষিক্ত হন।


প্রশ্ন ৩: পোটসডাম সম্মেলনে সোভিয়েত প্রভাব কিভাবে বৃদ্ধি পায়?

উত্তর: পোটসডাম সম্মেলনে গৃহীত সিদ্ধান্তগুলির মাধ্যমে পূর্ব ইউরোপে সোভিয়েত প্রভাব বিস্তার আরও সুদৃঢ় হয়। সম্মেলনে পূর্ব প্রাশিয়া এবং পোল্যান্ডের ভূমি পুনর্বন্টন এবং জার্মানীর বিভিন্ন অংশের নিয়ন্ত্রণ সোভিয়েত রাশিয়ার হাতে অর্পণ করা হয়, যা সোভিয়েত প্রভাব বৃদ্ধিতে সহায়ক হয়।


প্রশ্ন ৪: পোটস্ডাম সম্মেলন কেন ঠান্ডা লড়াইয়ের পূর্বাভাস হিসাবে দেখা হয়?

উত্তর: পোটস্ডাম সম্মেলনের সময় থেকেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত রাশিয়ার মধ্যে মতবিরোধ এবং ক্ষমতার লড়াই স্পষ্ট হয়ে ওঠে। সম্মেলনের পর জার্মানীর বিভক্তি এবং ইউরোপের অন্যান্য দেশে সোভিয়েত প্রভাব বিস্তার ঠান্ডা লড়াইয়ের শুরুতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।


প্রশ্ন ৫: পোটসডাম সম্মেলনের মাধ্যমে জার্মানীকে কিভাবে পুনর্গঠন করা হয়েছিল?

উত্তর: পোটসডাম সম্মেলনে জার্মানীকে চারটি সামরিক বলয়ে বিভক্ত করা হয়—মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, এবং ফ্রান্সের নিয়ন্ত্রণে। এছাড়া, জার্মানীর সামরিক এবং ন্যাছেী প্রতিষ্ঠানগুলিকে সম্পূর্ণভাবে বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এবং যুদ্ধের ক্ষতিপূরণ আদায়ের জন্য একটি কমিশন গঠিত হয়।

Next Post Previous Post