গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি কে ছিলেন?

★★★★★
গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি, সাতবাহন সাম্রাজ্যের বিখ্যাত শাসক, ১০৬-১৩০ খ্রিস্টাব্দে রাজত্ব করেন। তাঁর প্রজাহিতৈষী শাসন ও শাস্ত্র পাণ্ডিত্য সাতবাহন সাম্রাজ্যকে

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি ছিলেন সাতবাহন সাম্রাজ্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ও বিখ্যাত শাসক। তিনি ১০৬ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৩০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত রাজত্ব করেন এবং তাঁর শাসনামলে সাতবাহন সাম্রাজ্য তার সর্বোচ্চ বিস্তারে পৌঁছায়। গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি শুধু একটি শক্তিশালী সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেই ক্ষান্ত হননি, তিনি ছিলেন একজন প্রজাহিতৈষী শাসক ও শাস্ত্র পণ্ডিত।

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি: সাতবাহন সাম্রাজ্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি

শাসনামলের বিস্তার

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি তার রাজত্বকালে দক্ষিণ ভারতের বৃহৎ অংশ জয় করেন। তাঁর শাসনামলে সাতবাহন সাম্রাজ্য সমগ্র দক্ষিণ ভারতের একটি গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হিসেবে পরিচিত হয়। তাঁর সাম্রাজ্যের বিস্তার ও শক্তির কারণে তিনি "ত্রিসমুদ্র-তোয়-পীত-বাহন" উপাধি গ্রহণ করেন, যা বোঝায় যে তিনি তিনটি মহাসাগরের উপর দিয়ে রাজত্ব করেছেন।


প্রজাহিতৈষী শাসক

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি ছিলেন একজন প্রজাহিতৈষী শাসক। তিনি সাধারণ মানুষের কল্যাণে বহু কাজ করেন এবং তাঁর শাসনামলে প্রজাদের মধ্যে সুখ ও শান্তি বজায় থাকে। তিনি কৃষি, বাণিজ্য ও শিল্পের উন্নয়নে গুরুত্ব দেন, যা তাঁর সাম্রাজ্যের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করে।


শাস্ত্র পণ্ডিত

শুধু একজন শক্তিশালী শাসকই নয়, গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি ছিলেন একজন শাস্ত্র পণ্ডিতও। তিনি বিভিন্ন শাস্ত্রে পণ্ডিত ছিলেন এবং সংস্কৃতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তাঁর শাসনামলে সাহিত্য, শিল্প ও সংস্কৃতির ব্যাপক উন্নয়ন ঘটে।


উপসংহার

গৌতমীপুত্র সাতকর্ণি ছিলেন সাতবাহন সাম্রাজ্যের একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র। তাঁর শক্তিশালী শাসন, প্রজাহিতৈষী মনোভাব ও শাস্ত্র পাণ্ডিত্যের জন্য তিনি ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে রয়েছেন। তাঁর শাসনামলে সাতবাহন সাম্রাজ্য তার সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছায় এবং সমগ্র দক্ষিণ ভারতে একটি প্রভাবশালী শক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

Tags:
Next Post Previous Post

You May Also Like

Editor
ইতিহাস পাঠশালা

যা কিছু প্রাচীন, যা কিছু অতীত তাই হল ইতিহাস৷ ইতিহাস পাঠশালা হল ইতিহাসের সংক্ষিপ্ত, উত্তরধর্মী, প্রবন্ধ মূলক পাঠ সহায়ক একটি ব্লগ৷ মূলত ইতিহাস বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরাই এই ব্লগের প্রধান লক্ষ্য৷