কোরিয়ান যুদ্ধের কারণ কি ছিল? সংক্ষেপে, এই যুদ্ধে UNO এর ভূমিকা মূল্যায়ন করুন।

Causes of the Korean War: Assessing the Role of the United Nations

 কোরিয়ান যুদ্ধের কারণ: জাতিসংঘের ভূমিকা মূল্যায়ন

1950 থেকে 1953 পর্যন্ত সংঘটিত কোরিয়ান যুদ্ধের বেশ কয়েকটি কারণ ছিল যা এর প্রাদুর্ভাবের জন্য অবদান রেখেছিল। এখানে মূল কারণগুলি রয়েছে:

 1. কোরিয়ার বিভাজন: 

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর কোরিয়াকে দুটি পৃথক দেশ, উত্তর কোরিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়াতে বিভক্ত করা সংঘর্ষের ভিত্তি স্থাপন করে। উত্তর কোরিয়া কমিউনিজম এবং দক্ষিণ কোরিয়া পুঁজিবাদকে আলিঙ্গন করার সাথে দুটি সরকারেরই পরস্পরবিরোধী মতাদর্শ ছিল।

 2. ঠান্ডা যুদ্ধের উত্তেজনা: 

কোরিয়ান যুদ্ধ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের মধ্যে ঠান্ডা যুদ্ধের উচ্চতার সময় ঘটেছিল। পরাশক্তিরা এই সংঘাতকে এই অঞ্চলে তাদের স্বার্থ ও মতাদর্শকে এগিয়ে নেওয়ার সুযোগ হিসেবে দেখেছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়াকে সমর্থন করেছিল, যখন সোভিয়েত ইউনিয়ন উত্তর কোরিয়াকে সমর্থন করেছিল।

 3. উত্তর কোরিয়ার আক্রমণ: 

25 জুন, 1950 সালে, উত্তর কোরিয়া দক্ষিণ কোরিয়ায় একটি আশ্চর্যজনক আক্রমণ শুরু করে, যার লক্ষ্য ছিল উপদ্বীপকে কমিউনিস্ট শাসনের অধীনে একীভূত করা। এই আক্রমনাত্মক কাজটি যুদ্ধ শুরুর জন্য একটি উল্লেখযোগ্য ট্রিগার ছিল।

 4. জাতিসংঘের প্রতিক্রিয়া: 

কোরীয় যুদ্ধে জাতিসংঘ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ উত্তর কোরিয়ার আগ্রাসনের নিন্দা ও যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। দক্ষিণ কোরিয়াকে সমর্থন করার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে একটি জাতিসংঘ কমান্ড প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

 5. চীনা হস্তক্ষেপ: 

যুদ্ধের অগ্রগতি এবং জাতিসংঘের বাহিনী উত্তর কোরিয়ার সৈন্যদের চীনা সীমান্তের দিকে ঠেলে দেওয়ার সাথে সাথে চীন একটি সম্ভাব্য মার্কিন নেতৃত্বাধীন ঐক্যবদ্ধ কোরিয়া সম্পর্কে উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে। 1950 সালের শেষের দিকে, চীন হস্তক্ষেপ করে, উত্তর কোরিয়াকে সমর্থন করার জন্য সৈন্য পাঠায় এবং সংঘর্ষকে দীর্ঘায়িত করে।

 সংক্ষেপে, জাতিসংঘ আক্রমণের নিন্দা করে, দক্ষিণ কোরিয়াকে সাহায্য করার জন্য একটি কমান্ড প্রতিষ্ঠা করে এবং যুদ্ধবিরতির জন্য একটি প্রস্তাব উন্নীত করে কোরিয়ান যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যাইহোক, চীনা হস্তক্ষেপ এবং পরবর্তী অচলাবস্থা জাতিসংঘের একটি নিষ্পত্তিমূলক বিজয় রোধ করে। যুদ্ধটি একটি যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে শেষ হয়েছিল যা কোরিয়ান ডিমিলিটারাইজড জোন প্রতিষ্ঠা করেছিল এবং উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে বিভাজন আজও রয়ে গেছে।

Related Short Question:

প্রশ্ন: কোরীয় যুদ্ধে ইউএনওর ভূমিকা কী ছিল?

 উত্তর: ইউএনও উত্তর কোরিয়ার আক্রমণের নিন্দা করেছেন, দক্ষিণ কোরিয়াকে সাহায্য করার জন্য একটি কমান্ড প্রতিষ্ঠা করেছেন এবং যুদ্ধবিরতির জন্য চাপ দিয়েছেন।

 প্রশ্নঃ ইউএনও কি উত্তর কোরিয়া বা দক্ষিণ কোরিয়াকে যুদ্ধে সমর্থন করেছিল?

 উত্তর: যুদ্ধে ইউএনও দক্ষিণ কোরিয়াকে সমর্থন করেছিল।

 প্রশ্ন: উত্তর কোরিয়ার আগ্রাসনের জবাবে ইউএনও কী পদক্ষেপ নিয়েছিল?

 উত্তর: ইউএনও আক্রমণের নিন্দা জানিয়ে এবং যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে।

 প্রশ্নঃ কোরীয় যুদ্ধে জাতিসংঘের বাহিনীর নেতৃত্বে কোন দেশ?

 উত্তর: কোরীয় যুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘের বাহিনীর নেতৃত্ব দিয়েছে।

 প্রশ্ন: চীনের হস্তক্ষেপ কীভাবে যুদ্ধে ইউএনও-এর ভূমিকাকে প্রভাবিত করেছিল?

 উত্তর: চীনা হস্তক্ষেপ সংঘাতকে দীর্ঘায়িত করেছে এবং জাতিসংঘের একটি সিদ্ধান্তমূলক বিজয় রোধ করেছে।

 প্রশ্ন: আঞ্চলিক বিভাজনের ক্ষেত্রে কোরিয়ান যুদ্ধের ফলাফল কী ছিল?

 উত্তর: কোরিয়ান ডিমিলিটারাইজড জোন প্রতিষ্ঠা করে এবং উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে বিভাজন বজায় রেখে যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে যুদ্ধ শেষ হয়েছিল।

Next Post Previous Post