ভারতীয় জনজীবনে তথা সমাজ জীবনে সুফি আন্দোলনের প্রভাব আলোচনা কর

মধ্য যুগীয় সমাজ ব্যবস্থা রূপায়ণের ক্ষেত্রে সুফিবাদ একটি সামাজিক শক্তি হিসেবে কাজ করে ছিল৷ সুফিবাদের সহজ সরল জীবনযাত্রা, চারিত্রিক মাধুর্য, গভীর নীতি বোধ সাধারন মানুষকে মুগ্ধ করে ছিল ৷ এই আন্দোলনের প্রভাব গুলি হল-

সুফিবাদের জনপ্রিয়তা

সুফিবাদের মানবতাবাদ, আরম্বর হীনতা, সহজ সরল জীবন যাত্রা সাধারন মানুষকে আকৃষ্ট করে ছিল৷ ফলে জাতি-বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে সকল মানুষের কাছে সুফিবাদ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এবং ধর্মীয় উন্মাদনা অনেকটাই প্রশমিত হয়৷

সুফিবাদের আকর্ষণীয়তা

ইসলামের সামাজিক সাম্য ও বিশ্ব ভ্রাতৃত্বের আদর্শ সুফিবাদিরা মেনে চলত৷ এই কারনে তথা কথিত নিম্ন বর্ণের হিন্দু ও অস্পৃশ্যদের কাছে সুফিবাদ আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে৷

নতুন চিন্তার বিকাশ

চারিত্রিক শুদ্ধতায় বিশ্বাসী সুফিরা সুরা পান, জুয়া খেলা, কৃতদাস প্রথা ও বহু বিবাহের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করে ছিল৷ সুফি সাধকদের এই উচ্চনৈতিকতা বোধ মুসলিম যুবকদের মধ্যে প্রবল ভাবে জাগরণ সৃষ্টি করেছিল৷

হিন্দি ভাষার বিকাশ

হিন্দি ভাষা  ও কাওয়ালি গানের বিকাশে সুফি সাধকদের দান অবিস্মরণীয় ৷ ইসলাম ধর্মে সঙ্গিত বর্জনীয় হলেও সুফি সাধকরা মনে করতেন যে, সঙ্গিতে পরমাত্মার সঙ্গ লাভের আনন্দ পাওয়া যায়৷ এমনকি তারা কথোপকথনে হিন্দি ভাষার ব্যবহার ও হিন্দি ভাষায় কবিতা রচনার ফলে এই ভাষার ব্যপক সমৃদ্ধি হয়৷

শিক্ষার বিকাশ

কেবলমাত্র ধর্মাচরণের কেন্দ্র নয়, সুফিদের খানকাহ গুলি বিদ্যাচর্চা ও জ্ঞান অন্বেষণের অন্যতম কেন্দ্রে পরিণত হয়৷ অনেক খানকা শিক্ষা বিস্তার নিয়মিত ভাবে বিদ্যালয় পরিচালনা করত৷

গোঁড়ামি হ্রাস

সুফিবাদের প্রভাবে ভারতে গোঁড়ামিভাব অনেকটাই কমে যায়৷ বহিঃদেশীয় ইসলাম ধর্ম ভারতীয় ধর্মে পরিনত হয়৷


পরিশেষে বলা যায়, সুফিবাদের প্রভাবে ইসলামের ভারতীয় করণ ঘটে ছিল৷ সুফি সন্তরা ভারতকে তাঁদের স্বদেশ এবং ভারতবাসীকে তাঁদের স্বজন বলে মনে করে তাদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলে৷ যা ভারতবর্ষে মুসলিম শাসন সুদৃঢ় করণে  সহায়ক হয়ে ছিল৷
Next Post Previous Post